ঢাকা, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
বেলি ফ্যাট

বেলি ফ্যাটের কারণসমূহ

Desk | আপডেট : ১৪ অক্টোবর, ২০২০ ০৯:২১
বেলি ফ্যাটের কারণসমূহ

ছেলে মেয়েদের আজকাল একই সমস্যা। তা হলো ভুড়ি। অনেকসময় কম খেলেও ভুড়িটা নিজের ইচ্ছেমত বেড়েই চলে। এমতবস্থায় ভুড়িওয়ালা ব্যক্তি বুঝতেই পারে না ঠিক কি কারণে তার ভুড়ি কমছেই না।শুধুমাত্র খাওয়াদাওয়াই নয়, বেলি ফ্যাট হতে পারে আরও নানা কারণে। তাইতো আজকের লেখায় আমরা আপনাদের জানাবো শুধুমাত্র খাওয়াদাওয়াই নয়, বেলি ফ্যাটের রয়েছে আরোও অনেক কারণঃ

১। সারা দিনে ঘুরতে ফিরতে, কাজের ফাঁকে কিছু-না-কিছু খাওয়া হয়েই যায়। কিন্তু এই খাবারগুলি মুখরোচক স্ন্যাক্স হলেই গন্ডোগোল। ফাস্ট ফুড খেতে ভাল হলেও স্বাস্থ্যের জন্য একেবারেই ঠিক নয়। তার বদলে যদি ফল, আমন্ড বা স্যালাড খাওয়া যায়, তাতে উপকার হবে।
২। দই খাওয়ার অভ্যাস করুন। কারণ এতে যে ‘গুড ব্যাক্টেরিয়া’ থাকে, তা হজমে সাহায্য করে। ফলে পেটে মেদ বাডার সুযোগ হয় না।
৩। করনেল ইউনিভারসিটির বিশেষজ্ঞদের মতে, নেগেটিভ ইমোশান থাকলে বেশি খাওয়ার প্রবণতা হয়। যা শরীরে পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক।
৪। তৃষ্ণা পেলে অনেকেই সফট ড্রিঙ্কস পান করে। এতে অত্যাধিক ক্যালোরি রয়েছে যা শরীরে মেদ বাড়িয়ে দেয়।
৫। রোগা হতে গিয়ে অনেকেই খাওয়াদাওয়া কমিয়ে দেয়। চিকিৎসকদের মতে, খাবারের পরিমাণ কমালে সমস্যা নেই। কিন্তু, বেশি ক্ষণ না খেয়ে থাকলেও পেটে মেদ জমে।
৬। অফিসে বা অন্য কোনও কাজ করার সময় এক ভাবে অনেকক্ষণ বসে থাকলেও বেলি ফ্যাট বেড়ে যায়। বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতি এক থেকে দেড় ঘণ্টা অন্তর নিজের সিট থেকে উঠে খানিক হাঁটাচলা করা উচিত।

উপরে