ঢাকা, রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯
ব্যায়াম ছাড়া ওজন কমানো

ব্যায়াম ছাড়া ওজন কমানোর কৌশল

20fours Desk | আপডেট : ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৮:২১
ব্যায়াম ছাড়া ওজন কমানোর কৌশল

শরীরের বাড়তি মেদ নিয়ে আজকাল অনেকেই চিন্তিত। সুস্বাস্থ্যের জন্য তো বটেই, শারীরিক সৌন্দর্যের জন্যও নারী-পুরুষ উভয়েই ভাবেন ওজন কমাবেন। কিন্তু কর্মব্যস্ততার কারণে অনেক সময়েই ওজন কমানোর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যায়াম বা ডায়েট করা হয়ে ওঠে না। শহুরে জীবনে দীর্ঘ সময় বসে বসে কাজ করা, দৈহিক পরিশ্রম কম হওয়ার কারণে পেটে মেদ জমতে থাকে। যত দ্রুত পেটে মেদ জমে, তত তাড়াতাড়ি তাকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়াটা কঠিন। কিন্তু সমস্যা থাকলে তার সমাধান থাকবে না, এটা আবার হয় নাকি! কৌশল জানা থাকলে আর প্রতিদিনকার কিছু সহজ অভ্যাসের মাধ্যমে আপনি নিজেই কমিয়ে নিতে পারেন আপনার বাড়তি ওজন সেটাও ব্যায়াম ছাড়াই।

চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক ব্যায়াম ছাড়া ওজন কমানোর কৌশলঃ

(১) অবসাদ আর ক্লান্তি দূর করতে অনেকের কাছেই কফির কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু এটি তরল ক্যালরির আধার, ওজন বৃদ্ধিতে বেশ সহায়ক। তাই কফি থেকে বেরিয়ে আসুন। একই কাজ করুন সোডা, প্যাকেটজাত জুস বা অন্যান্য বেভারেজের ক্ষেত্রে। এছাড়া পর্যাপ্ত পানি না খেলে দেহের বিপাকক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হয়। এতে হজমপ্রক্রিয়া নষ্ট হতে থাকে। যারা খাদ্য গ্রহণে উদার, তাদের নিয়ন্ত্রণ প্রয়োজন। আর তা করতে পারেন পানির মাধ্যমে। যাতে মনোযোগ দেওয়ার আগে এক গ্লাস পানি খেয়ে শুরু করুন। এতে সঙ্গে সঙ্গেই ক্ষুধা অনেক কমে যাবে।

(২) খাবার তৈরির জিনিসপত্রের বেশির ভাগই প্যাকেটজাত উপকরণ। আপনাকে এই প্যাকেটের ধোঁয়াশা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। অর্থাৎ খাবার তৈরিতে প্যাকেটজাত উপকরণের সংখ্যা যতো কমে আসবে, তত বেশি উপকার মিলবে।এছাড়া অনেকেই হালকা-পাতলা খাবার খেতে গিয়ে এটা-সেটা বেছে নেয়। কিন্তু এতে আসলে দীর্ঘ মেয়াদে কোনো সফলতা মেলে না। এই পদ্ধতিতে খুব দ্রুত ওজন কমে যায়। কিন্তু আবার স্বাভাবিক খাবার শুরু করলে ওজন বেড়ে যায়। আসলে এ পদ্ধতিতে ওজন হ্রাস-বৃদ্ধি চক্রের মধ্যে পড়ে। শেষ পর্যন্ত ওজন আর নিয়ন্ত্রণে থাকে না।

(৩) ভিটামিন, প্রোটিন, মিনারেল সমৃদ্ধ খাবার হল সবজি। এটি আপনার সারাদিনের খাবারে পুষ্টি পূরণ করবে। এতে খুব অল্প পরিমাণে ক্যালরি এবং ফ্যাট আছে। তাই ভাত বা মাংস খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিয়ে সবজি যোগ করুন এবং অবশ্যই খাবার ভাল করে চিবিয়ে খান। এটি আপনাকে কম খেতে সাহায্য করবে। এর সাথে এই ভাবে খাবার খেলে খাবার সহজে হজম হয়ে যাবে।

(৪) ব্যায়ামের কাজটি দৈনন্দিন কাজের মধ্যেই সারতে পারেন। অনেকভাবেই কাজটি করা যায়। দুপুরে খাওয়ার পর রেস্টরুমে ঝিমানো বন্ধ করুন। এলিভেটর উপেক্ষা করে সিঁড়ি বেয়ে উঠে যান। গাড়িতে ওঠার আগে একটু হেঁটে আসুন দূর থেকে। প্রয়োজনে অফিসের একটু আগে গাড়ি থেকে নেমে পড়ুন। এবার বাকি পথ হাঁটুন। এগুলো খুবই উপকারী ব্যায়াম।

(৫) আপনি যদি ডায়েট ছাড়া ওজন কমাতে চান তবে গ্রিন টি পান করুন। এর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান আপনার শরীরে মেদ কমতে সাহায্য করবে এবং চিনি এবং চিনি জাতীয় খাদ্য দ্রব্য আপনাকে মুটিয়ে দেয় তাই চিনি কে না বলুন।

ঘুম ঠিক না থাকলে ওজন বেড়ে যাবে । ‘আমেরিকান জার্নাল অব হেলথ প্রমোশনের গবেষণা অনুযায়ী, যারা প্রতি রাতে সাড়ে ছয় ঘণ্টা থেকে সাড়ে আট ঘণ্টা ঘুমান, তাদের দেহে একেবারেই চর্বি জমে না। তাই ঘুমের বিষয়টাকে গুরুত্বের সঙ্গে নিতে হবে। এই নিয়ম গুলো মেনে চলুন তাহলেই আপনিও আপনার ওজন কমিয়ে নিতে পারবেন ব্যায়াম ছাড়াই।

উপরে