ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
ফুলবাড়িয়ার সন্তোষপুর রাবার বাগান

ঘুরে আসুন ফুলবাড়িয়ার সন্তোষপুর রাবার বাগান

| আপডেট : ২৩ আগস্ট, ২০১৯ ০৮:১৭
ঘুরে আসুন ফুলবাড়িয়ার সন্তোষপুর রাবার বাগান

ফুলবাড়িয়া বাংলাদেশের ময়মনসিংহ জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা। ময়মনসিংহ জেলা সদর থেকে ২০ কিলমিটার দূরত্বে ফুলবাড়িয়া উপজেলার অবস্থান। ফুলবাড়ীয়া উপজেলার উত্তরে ময়মনসিংহ সদর; দক্ষিণে ভালুকা ও টাংগাইল জেলার ঘাটাইল উপজেলা, পূর্বে ত্রিশাল, পশ্চিমে মুক্তাগাছা ও টাংগাইল জেলার মধুপুর উপজেলা অবস্থিত।আজকের লেখায় মুলত থাকছে ভ্রমণ পিয়াসুদের জন্য ফুলবাড়িয়ার সন্তোষ্পুর রাবার বাগানের কথা। ঢাকা থেকে বেশি দূরে নয়, অথচ জানেন না অনেকেই।যেখানে হাজার হাজার গাছের দৃষ্টিনন্দন সৃজনে রাবার বাগান আর বন্য বানরের লুকোচুরি।

ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়ীয়া উপজেলার কেশরগঞ্জ বাজার থেকে প্রায় ৮ কিলোমিটার পশ্চিমে আঁকাবাঁকা গ্রামীণ মেঠোপথ পেরোলে চোখে পড়বে নয়নাভিরাম পাহাড়ি বনাঞ্চল সন্তোষপুর।
ইহা প্রায় ১০৬ একর জমি নিয়ে অবস্থিত। বনের একটি বড় অংশ উজাড় করে আশির দশকে তৈরি করা হয়েছে রাবার বাগান। বাগানের অভ্যন্তরে রয়েছে বিরল প্রজাতির বানরের বসবাস। যা দেখতে প্রতিদিন অনেক দর্শনার্থী আসেন।
গ্রামটি ঘিরে রয়েছে বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশনের নিপুণ হাতে তৈরি রাবার বাগান। সবুজ বনায়ন ও প্রকৃতির সৌন্দর্য শাল-গজারিগাছ, বন্যপ্রাণী, পাখিদের কিচিরমিচির শব্দে যে কাউকে করে তুলবে ব্যাকুল। রাবারগাছ থেকে ট্রেপারদের (শ্রমিক) কষ আহরণের দৃশ্য এবং রাবার কষ থেকে রাবার উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাতকরণ পর্যটকদের আকৃষ্ট করে থাকে। রাবার বাগান থেকে সংগৃহিত রাবার প্রক্রিয়াজাত করে দেশ বিদেশে রপ্তানি করে সরকার প্রচুর রাজস্ব আয় করে থাকে। ইহা বন বিভাগের নিয়ন্ত্রণাধীন।
বনটিকে ঘিরে রয়েছে প্রায় পাঁচ শতাধিক বানর। বন বিভাগ থেকে এদের তদারকির ব্যবস্থা করা হয়ে থাকে। এদের খাবারের জন্যও আলাদা বরাদ্দও রয়েছে, তবে সেটি বেশ অপ্রতুল। বনাঞ্চলের বানরগুলোকে দর্শনার্থীরা নামকরণ করেছে ‘সামাজিক বানর’। কারণ, বানরগুলো দর্শনার্থীদের মাথায় ও কাঁধে উঠে খাবার নেয়। ছোট শিশুরা বন্যপ্রাণীর সঙ্গে দুষ্টুমি করলেও কোনো কামড় বা আঁচড় দেয় না, যা দর্শনার্থীদের জন্যও হয়ে ওঠে উপভোগ্য। সেই দৃশ্য আপনি নিজ চোখে না দেখলে বিশ্বাস হবে না। বানররা বেশ দলবদ্ধ প্রাণী, তা এখানে আসলে আঁচ করতে পারবেন। প্রতিটি দলে রয়েছে একজন দলপতি আর রয়েছে শতাধিক বানর।

যাবেন কীভাবে

নিজস্ব গাড়ি বা রেন্ট-এ কার নিয়ে গেলে ঘুরে বেড়াতে সুবিধা হবে বেশি। তবে ঢাকার মহাখালী বাসস্ট্যান্ড থেকে ময়মনসিংহগামী বিভিন্ন পরিবহনের বাস সার্ভিস রয়েছে। ভাড়া নেবে জনপ্রতি ২২০ টাকা। গাড়ি থেকে নেমে যেতে হবে ময়মনসিংহের আগেই ফুলবাড়ীয়া বাসস্ট্যান্ড। সেখান থেকে অটো-সিএনজিতে অর্কিড বাগান। ইচ্ছা করলে সারা দিনের জন্য ভাড়া নিয়ে একেবারে সন্তোষপুর রাবার বাগানসহ আরও আশপাশ ঘুরে আসতে পারবেন। আর যারা শুধু সন্তোষপুর বানর পল্লী যাবেন, তারা ফুলবাড়ীয়া উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে সিএনজিতে জনপ্রতি ৭০-১০০ টাকা করে সরাসরি চলে যেতে পারেন।

উপরে