ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮
এন্ড্রয়েড ফোনের চার্জ

এন্ড্রয়েড ফোনের চার্জ ধরে রাখার কার্যকরী কিছু টিপস

20fours Desk | আপডেট : ৩ মে, ২০১৮ ১৩:৩৭
এন্ড্রয়েড ফোনের চার্জ ধরে রাখার কার্যকরী কিছু টিপস

বর্তমান সময়ে আমরা কম-বেশি সবাই এন্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করে থাকি। কেননা যুগের সাথে সবকিছুরই পরিবর্তন এসেছে। আর তাই এখন প্রত্যেকের হাতে হাতে দেখা যায় এন্ড্রয়েড ফোন। আর এই ফোন গুলোর সুবিধা ও অনেক। হাতের মুঠোয় থাকে ইন্টারনেট। কিন্তু সুবিধার পাশাপাশি রয়েছে অসুবিধা ও। এই এন্ড্রয়েড ফোন গুলোতে চার্জ বেশিক্ষন স্থায়ী হয়না।ফলে নানান রকম বিরক্তিতা কাজ করে । তবে চিন্তার কিছু নেই আমরা আজ আপনাদের এই সমস্যার সমাধানে কিছু কার্যকরী টিপস নিয়ে এসেছি।

চলুন তাহলে জেণে নেওয়া যাক এন্ড্রয়েড ফোনের চার্জ ধরে রাখার কার্যকরী কিছু টিপসঃ

(১) ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখুনঃ
এটা হয়তো অনেকেই জানেন এবং প্রয়োগ করে থাকেন। যাঁরা এখনো এই কাজটা করেন না, তাঁরা ডিসপ্লের ঔজ্জ্বল্য বা ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখা শুরু করুন। এ পদ্ধতি ল্যাপটপ, ট্যাবের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।এতে করে চার্জ থাকবে দীর্ঘক্ষণ ।

(২) ওয়ালপেপার কালো ব্যবহার করুনঃ
অ্যামোলেড স্ক্রিনের ফোনে কালো বা এ ধরনের রঙের ওয়ালপেপার ব্যবহার করলে চার্জ কম খরচ হয়। কারণ, অ্যামোলেড স্ক্রিনের আলো খরচ হয় বিভিন্ন রঙের পেছনে। তাই যত রঙিন ওয়ালপেপার দেওয়া হবে, আলোর খরচ বাড়বে, সে সঙ্গে চার্জও খরচ হবে।

(৩) লক স্ক্রিন নোটিফিকেশন চালু করুনঃ
স্মার্টফোনের চার্জ বাঁচানোর আরেকটি ভালো বুদ্ধি হচ্ছে লক স্ক্রিন নোটিফিকেশন চালু করে রাখা। এতে বারবার আপনাকে লক খুলে নোটিফিকিশেন দেখতে হবে না। ফলে চার্জ কম খরচ হবে।

(৪) ব্যবহারের পর অ্যাপস বন্ধ করুনঃ
ঠিকমতো বন্ধ না করার কারণে অনেক সময় বিভিন্ন অ্যাপস চালু থাকে, যেটা অনেকে খেয়াল করেন না। বিশেষ করে জিপিএস ও ওয়াই- ফাইয়ের ক্ষেত্রে এ ব্যাপারটা বেশি ঘটে। আর এ দুটি অ্যাপস চালু থাকলে দ্রুত চার্জ ফুরিয়ে যায়। তাই কাজ শেষ হওয়ার পর অ্যাপস বন্ধ করুন।

(৫) লো-পাওয়ার মোডঃ
আপনার ফোনে যদি অ্যানড্রয়েড ৫ দশমিক শূন্য বা এর পরের ভার্সনের অপারেটিং সিস্টেম থাকে, তাহলে আপনার কপাল ভালো। কারণ, ফোনের চার্জ ১৫ শতাংশের কম হলেই এসব অপারেটিং সিস্টেমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে লো-পাওয়ার মোড চালু হয়ে যায়। অ্যানড্রয়েড অপারেটিংয়ের মার্শম্যালো ভার্সনে রয়েছে ‘ডোজ’ নামে একটি নতুন ফিচার। স্মার্টফোনের চার্জ কমে গেলে এই ফিচার ফোনটিকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে হাইবারনেশন মোডে নিয়ে যায় আর অনেকক্ষণ ধরে অব্যবহৃত অবস্থায় থাকা অ্যাপগুলো বন্ধ করে দেয়।

(৬)  অ্যাপস ডাউনলোড ও আপডেটঃ
অ্যাপস ডাউনলোড ও আপডেটের ক্ষেত্রে ওয়াই- ফাই সংযোগ ব্যবহার করুন। মোবাইলের ডাটা ব্যবহার করলে চার্জ বেশি খরচ হবে, এ ছাড়া সময়ও যাবে বেশি। সে ক্ষেত্রে দ্রুতগতির ওয়াই-ফাই সংযোগ ব্যবহার করলে তাড়াতাড়ি অ্যাপসগুলো ডাউনলোড ও আপডেট হয়ে যাবে। মোবাইলের চার্জও কম খরচ হবে।

(৭) এয়ারপ্লেন মোড চালু করুনঃ
স্মার্টফোনটি এয়ারপ্লেন মোডে থাকলে সব ধরনের ওয়ারলেস ফিচার বন্ধ হয়ে যায়। এতে ফোনের চার্জ কম খরচ হয়।

এছাড়া স্মার্টফোনের ব্যাটারি নষ্ট হয়ে গেলে আসল ব্যাটারি ব্যবহারের চেষ্টা করুন। এতে আপনার ফোন ভালো থাকবে এবং চার্জও থাকবে অনেকক্ষণ।

উপরে