ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮
খুশকি নিয়ে এই ভুল ধারনা

খুশকির নিয়ে এই ভুল ধারনাগুলো আপনিও মানেন নাকি?

20fours Desk | আপডেট : ২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৯:২০
খুশকির নিয়ে এই ভুল ধারনাগুলো আপনিও মানেন নাকি?

শীতকালে চলেই এল। আর এই শীতে আমাদের যেসব সমস্যা সবথেকে প্রকট হয়, এর মধ্যে খুশকির সমস্যা অন্যতম। যদিও সারাবছর জুড়েই এই সমস্যা আমাদের লেগেই থাকে, তবুও যেন শীতে এই সমস্যাটি আরও অনেক বেশি বেড়ে যায়। এটি খুবই অস্বস্তিকর একটি সমস্যা এবং অনেক সময় এর কারণে আমাদের অনেক বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। আমাদের অনেকের মাঝে খুশকি নিয়ে বেশ কিছু ভুল ধারনা রয়েছে। আমরা অনেকেই জানি না, আসলে এই খুশকি জিনিসটি আসলে কি? এটা কি ধরনের সমস্যা এবং কাদের হয় ও কেন হয়? আর এজন্য হয়তো আমাদের এই খুশকির সমস্যাটি বেশি হয়ে থাকে। তাই আসুন তবে আজ জেনে নিই খুশকি কিছু ভুল ধারনা এবং এ থেকে নিস্তার পাবার উপায় সম্পর্কে।

খুশকি নিয়ে কিছু ভুল ধারনাঃ

১। আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন, যারা মনে করেন পরিষ্কার থাকলে খুশকি একদমই হয় না। আবার অনেকেই ভেবে থাকেন মাথার ময়লাই হলো খুশকি। এটি কিন্তু সত্য নয়। আসলে পরিষ্কার থাকার সাথে খুশকির কোনো সম্পর্ক নেই। খুশকির সমস্যা হলো একধরনের সংক্রমণ জনিত সমস্যা।

২। অনেকেই মনে করেন খুশকি হলো মাথার ত্বকের মড়া চামড়া। আসলে এটি কিন্তু একদমই ভুল একটি ধারনা। খুশকি কিন্তু মাথার মড়া চামড়া না, এটি আসলে একধরনের ছাত্রাক। এর নার ডারমাটাইসিস।

৩। অনেকেই মনে করেন খুশকির সমস্যা সবার হয় না। এটি কিন্তু ঠিক না। খুশকির সমস্যা সবারই হয়ে থাকে। কারও বেশি, আর কারও কম। তবে যাদের মাথা তৈলাক্ত বেশি তাদের এই সমস্যা বেশি হয়ে থাকে।

৪। খুশকি যে শুধু মাথায় হয় তা কিন্তু একদমই ঠিক নয়, বরং এটি চোখের ভ্রু, কপালের আশেপাশে, কানের পাশে এমনকি বুকের লোমেও পর্যন্ত হতে পারে।

৫। অনেকেই মনে করেন খুশকির সমস্যা একেবারে নির্মূল করা যায়। এটি আসলে সত্য নয়। খুশকি কখনোই একদম নির্মূল করা সম্ভব না। কিন্তু একে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রনে রাখা যায়।

যেভাবে দূর করবেনঃ

খুশকির সমস্যা দূর করার জন্য সবচেয়ে কার্যকরি উপায় হলো নিয়মিত শ্যাম্পু করা। সাধারণত সপ্তাহে দুইদিন ভালো মানের অ্যান্টি ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু দিয়ে ভালো ভাবে মাথার ত্বক ঘষে ঘষে পরিষ্কার করতে হবে। এতে খুশকির সমস্যা কমে যায়। যদি এরপরেও না কমে তাহলে, ডাক্তার বা বিশেজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ি খুশকি নাশক লোশন বা ওষুধ খেতে হবে।

উপরে