ঢাকা, রবিবার, ২১ জুলাই, ২০১৯
আখরোট খাওয়ার উপকারিতা

আখরোট খাওয়ার উপকারিতা জানেন তো?

20Fours Desk | আপডেট : ২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১২:৫০
আখরোট খাওয়ার উপকারিতা জানেন তো?

আখরোটে রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ। কারন আখরোটে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে উচ্চমাত্রার ক্যালোরি ও চর্বি সমৃদ্ধ। আখরোট স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভালো। কিন্তু অনেকেই আছেন যারা এটি খেতে পছন্দ করেন না কিন্তু এর উপকারিতা জানলে অবাক হবেন।
চলুন তাহলে জেনে নেয়া যাক আখরোট খাওয়ার উপকারিতা গুলোঃ

১। ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করেঃ

সকল ধরনের বাদামই ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমানোর সাথে সম্পর্কিত। আখরোট ও এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম নয়। একটি গবেষণা মতে, যে নারীরা সপ্তাহে ২ দিন ২৮ গ্রাম আখরোট খেয়েছেন তাদের টাইপ ২ ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি ২৪% কমে। গবেষণা প্রতিবেদনটি নিউট্রিশন নামক সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়। যদিও গবেষণাটি শুধু নারীদের উপর করা হয়েছিল। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে এ ধরনের উপকারিতা ছেলেদের ক্ষেত্রেও একই রকম।

২। ঘুমের সমস্যা দূর করেঃ

আখরোটে মেলাটোনিন নামক যৌগ থাকে। মেলাটোনিন শরীরে সংশ্লেষিত হয়। আখরোট খেলে শরীরে মেলাটোনিনের মাত্রা বৃদ্ধি পায় বলে ঘুম ভালো হয়। এ কারণেই ঘুমের উন্নতিতে সাহায্য করে আখরোট।

৩। চুলের জন্য ভালোঃ

আখরোট চুলের জন্য উপকারী। কারণ এতে বায়োটিন (ভিটামিন বি ৭) থাকে যা চুলকে শক্তিশালী হতে সাহায্য করে, চুল পড়া কমে এবং চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

৪। হৃদরোগ প্রতিরোধ করেঃ

সকল উদ্ভিজ খাদ্য এবং বাদামের মধ্যে আখরোটে উচ্চমাত্রার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। ১০০ গ্রাম আখরোটে ২০ মিলিমোল অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। আখরোট ফ্রি র‍্যাডিকেলকে ধ্বংস করতে পারে বলে হৃদরোগ হতে বাঁধা দেয়। আখরোটে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড থাকে যা খারাপ কোলেস্টেরল কমাতে এবং ভালো কোলেস্টেরল বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। এ কারণেই আখরোট হৃদপিন্ডের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য একটি চমৎকার স্ন্যাক্স।

৫। ওজন কমতে সাহায্য করেঃ

 নিয়মিত আখরোট খেলে ওজন বৃদ্ধি পায় না। কারন ১ আউন্স আখরোটে ২.৫ গ্রাম ওমেগা ৩ ফ্যাট, ৪ গ্রাম প্রোটিন এবং ২ গ্রাম ফাইবার থাকে যা তৃপ্তি দিতে সাহায্য করে। যে কোন ওজন নিয়ন্ত্রণের পরিকল্পনায় তৃপ্তি অনেক বড় একটি বিষয়। তাই আপনি যদি ওজন নিয়ন্ত্রণের প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকেন তাহলে আখরোট নিঃসন্দেহে সঠিক একটি খাদ্য।

৬। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করেঃ

আখরোট ভিটামিন বি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে সমৃদ্ধ যা ত্বককে ফ্রি র‍্যাডিকেলের ক্ষতি থেকে রক্ষা করে এবং বলিরেখা ও বয়সের ছাপ পড়া প্রতিরোধ করে। আপনি যদি মধ্যবয়সেও দীপ্তিময় ত্বক চান তাহলে আখরোট খান।

৭। মস্তিস্কের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সাহায্য করেঃ

আখরোটে বেশ কয়েকটি নিউরোপ্রোটেকটিভ যৌগ যেমন- ভিটামিন ই, ফোলেট, মেলাটোনিন, ওমেগা ৩ ফ্যাট এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। গবেষণায় দেখা গেছে যে আখরোট খাওয়া মস্তিস্কের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। অন্য একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে আখরোটের মত উচ্চমাত্রার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট খাদ্য সাধারণত বয়স্ক ব্যক্তিদের অক্সিডেটিভ স্ট্রেসের কারণে সৃষ্ট দুর্বলতা কমাতে সাহায্য করে। মোটর ফাংশন এবং জ্ঞানের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

উপরে