ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮
চর্বিযুক্ত মাছের উপকার

জেনে নিন চর্বিযুক্ত মাছের উপকারী গুণাগুণ

20fours Desk | আপডেট : ৩ নভেম্বর, ২০১৮ ২২:১২
জেনে নিন চর্বিযুক্ত মাছের উপকারী গুণাগুণ

মাছ তাজা হতে হবে। মাছে একটুও চর্বি থাকা চলবে না। এমনটাই ধারণা কিছু সংখ্যক মানুষের। প্রোটিনের অন্যতম উৎস মাছ কমবেশি সবাই পছন্দ করে। ছোট মাছ নিয়ে তেমন কোনো সমস্যা না থাকলেও বড় মাছের ক্ষেত্রে অনেকেই চর্বিযুক্ত মাছ একদম পছন্দ করেন না। আবার অনেকে মনে করেন, মাছে একটু চর্বি থাকলে তাতে স্বাদটা বরং বাড়ে।
অনেকে আবার আছেন, যারা চর্বিযুক্ত মাছকে ক্ষতিকর বলে মনে করেন। তাদের ধারণা, চর্বিযুক্ত মাছ স্বাস্থ্যের জন্য হুমকি, চর্বিযুক্ত মাছের কোনো উপকারিতা নেই।
তবে পুষ্টি বিশেষজ্ঞরা বলছেন ভিন্ন কথা। তাদের মতে, মাছের চর্বিতে ক্ষতিকর উপাদান নয়, বরং রয়েছে উপকারী নানা গুণাগুণ। তাই চর্বিযুক্ত মাছ খাওয়ারই পরামর্শ তাদের। আজকে জানবো  চর্বিযুক্ত মাছের উপকারী গুণাগুণ গুলো।

চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক চর্বিযুক্ত মাছের উপকারী গুণাগুণ গুলোঃ

(১) মাছ ও মাছের তেলের উপকারিতা নিয়ে ব্যাপক গবেষণা হচ্ছে। মাছের তেলে যে চর্বি আছে, তা হলো অসম্পৃক্ত চর্বি। সাধারণভাবে বলা হয়, এটি ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিডের চমৎকার উৎস। এই ওমেগা ৩ ফ্যাটের গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান হলো ডিএইচএ। এটি রক্তনালিতে রক্ত জমাট বাঁধতে বাধা দেয়, রক্ত সরবরাহ নির্বিঘ্ন করে এবং রক্তের ক্ষতিকর চর্বিকে রক্তনালিতে জমতে বাধা দেয়। ফলে হৃদ্রোগ প্রতিরোধে এটি খুবই কার্যকর।

(২) বিভিন্ন কার্ডিওভ্যাসকুলার রোগ প্রতিরোধ করতে পারে চর্বিযুক্ত বা তৈলাক্ত মাছ। মানসিক চাপ কম করে হৃদরোগ প্রতিরোধ করতে পারে।

(৩) রিউমাটয়েড আর্থারাইটিসের সম্ভাবনা কম করে চর্বিযুক্ত মাছে থাকা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। এবং সেই সাথে স্মৃতিভ্রংশ প্রতিরোধ করে।

(৪) মুখ এবং ত্বকের ক্যানসার প্রতিরোধ করে তৈলাক্ত মাছ  এবং ছোট বয়স থেকে স্যামন মাছ খেলে হাঁপানির ঝুঁকি কম হয়।

(৫) দৃষ্টিশক্তি এবং স্মৃতিশক্তি উন্নত করে।এছাড়া বিপাক ক্রিয়া, দাঁত, পেশি ও হাড়ের গঠনে ভূমিকা রাখে। ছোট কাঁটাযুক্ত মাছ ক্যালসিয়ামের একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎস|

 এছাড়াও সমীক্ষায় দেখা গেছে, যে সমস্ত নারীরা নিয়মিত চর্বিযুক্ত বা তৈলাক্ত মাছ খেয়েছেন, তাঁদের মধ্যে স্তন ক্যানসার -এর সম্ভাবনা কম হয়েছে।

উপরে