দাঁত মাজার নিত্য কিছু ভুল | 20fours
logo
আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৩:০৯
দাঁত মাজার নিত্য কিছু ভুল
দাঁত মাজার নিত্য কিছু ভুল
20Fours Desk

দাঁত মাজার নিত্য কিছু ভুল

প্রতিদিনের শুরু হয় দাঁত ব্রাশ করা দিয়ে। অনেকেই একে তেমন গুরুত্ব দেন না। যেমন তেমন করে শেষ করেন ব্রাশ করা। কিন্তু এটা খুব বড় ভুল। আসলে দাঁত মাজার নির্দিষ্ট পদ্ধতি রয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে আমরা সেই জিনিসটাকেই অবহেলা করে থাকি। যার ফল হয়ে দাঁড়ায় মারাত্মক। দাঁত মাজার ক্ষেত্রে সঠিক পদ্ধতি অবলম্বন না করলে যে বড় বিপদ ঘটতে পারে তা জানিয়েছে একটি গবেষণা।তাই আজকের লেখাতে থাকছে আপনাদের জন্য দাঁত মাজার নিত্য কিছু ভুল।

চলুন তাহলে এখন জেনে নেওয়া যাক দাঁত মাজার নিত্য কিছু ভুলগুলোঃ

শক্ত ব্রিসলের ব্রাশ
অনেকেই সস্তার ১০-১৫ টাকা দামের ব্রাশ কিনে ভাবছেন টাকা বাঁচিয়ে ফেললেন। এই ব্রাশগুলোর ব্রিসল অনেক শক্ত হয়ে থাকে যা দাঁতের উপরের এনামেলের ক্ষতি করে। তাই দাম দিয়ে হলেও একটু নামী ব্র্যান্ডের ভাল নরম ব্রিসলের ব্রাশ ব্যবহার করার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

খুব বেশি জোরে দাঁত মাজা
অনেকেই মনে করেন, জোরে জোরে চাপ দিয়ে মাজার ফলে দাঁতের ময়লা ভাল করে পরিষ্কার হবে এবং দ্রুত পরিষ্কার হবে। আর এতেই ক্ষতিটা হয় বেশি। খুব বেশি জোরে চাপ দিয়ে ব্রাশ করতে গেলে দাঁতের এনামেল নষ্ট হয়ে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে।

অতিরিক্তি সময় নিয়ে ব্রাশ করা
অনেকেরই ধারণা বেশি সময় ধরে ব্রাশ করলে দাঁত ভাল করে পরিষ্কার হবে। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। প্রতিটা জিনিসেরই একটি নির্দিষ্ট সময় রয়েছে। ২ মিনিটের বেশি দাঁত মাজা অত্যন্ত ক্ষতিকর।

খাওয়ার ঠিক পরপরই দাঁত মাজা
অতিরিক্ত সচেতন মানুষ দাঁতের সুরক্ষায়, খাওয়ার পর পরই দাঁত পরিষ্কার করেন। যা উল্টো দাঁতের ক্ষতিই করে বেশি। খাওয়ার পর পরই বিশেষ করে অ্যাসিডিক খাবার ও ফলমূল খাওয়ার পর ব্রাশ করলে দাঁত ক্ষয় হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। খাওয়ার পরপর কুলকুচি করে, অন্তত ৩০ থেকে ১ ঘণ্টা পর দাঁত ব্রাশ করাটাই সঠিক পদ্ধতি।

ভুল টুথপেস্ট ব্যবহার করা
দাঁতের ক্ষয় রোধের জন্য যেমন সঠিক ব্রাশ প্রয়োজন, ঠিক তেমনই প্রয়োজন সঠিক টুথপেস্টের। বেশিরভাগ মানুষই বিজ্ঞাপন দ্বারা প্রভাবিত হয়ে রং-বেরঙয়ের টুথপেস্ট কিনে ব্যবহার করে থাকেন। স্বাস্থ্যসম্মত উপাদানের একটু বেশি দামি টুথপেস্ট কেনার পরামর্শ দেন ডাক্তাররা।