ঢাকা, সোমবার, ২০ মে, ২০১৯
প্রশান্তিদায়ক কয়েকটি ফল

প্রচণ্ড তাপদাহে প্রশান্তিদায়ক কয়েকটি ফল

20Fours Desk | আপডেট : ১২ মে, ২০১৯ ০৮:৪৯
প্রচণ্ড তাপদাহে প্রশান্তিদায়ক কয়েকটি ফল

পড়েছে গরম আর গ্রীষ্মকালে গরম যেমন আছে তেমনি মৌসুমী ফলের সমাহারও। বেশিরভাগ ফল গরমে  তাপে পেকে যায়। গরমে তাপদাহে প্রশান্তি পেতে আমরা অনেক কিছুই করে থাকি, কিন্তু আপনি কি জানেন এই গ্রীষ্মের মৌসুমে এমন কিছু ফল রয়েছে যা আপনাকে প্রচন্ড তাপদাহে প্রশান্তি এনে দিবে? আজকের লেখাতে থাকছে  এমনি কিছু ফলের নাম যা আপনাকে এই গ্রীষ্মের তাপদাহে প্রশান্তি পেতে সাহায্য করবে।


চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক প্রচণ্ড তাপদাহে প্রশান্তিদায়ক কয়েকটি ফলের নামঃ

১। তরমুজ
তরমুজের শরবত শরীরকে ঠাণ্ডা ও তাজা রাখে। তরমুজের রস খেলে শরীরের লাবণ্য বজায় থাকে।টায়ফয়েড জ্বরে আধাপাকা বা কাঁচা তরমুজের রস দু-চামচ করে দিনে তিন-চার বার খেলে দ্রুত উপকার পাওয়া যায়।

২। বেল
বেলের অনেক গুন। গরমের প্রশান্তি পেতে বেলের শরবতের জুড়ি নেই। কাঁচা বেল পুড়িয়ে বা সিদ্ধ করে খেলে হজম শক্তি বাড়ে এবং সকালে খালি পেটে খেলে বায়ু ও পেটের অসুখ ভালো হয়।

৩। শশা
অন্যান্য ফল ও সব্জির মত এতে অনেক অনেক ভিটামিন না থাকলেও আপনার প্রতিদিনের ভিটামিন সি ও ভিটামিন ‘কে’ এর চাহিদা পূর্ণ করতে পারে এই বহুল প্রচলিত খাবারটি। আপনার প্রতিদিনের সালাদে রাখুন অনেকখানি শসা। গরমে প্রাণ জুড়াতে শসা এবং পুদিনা পাতার শরবত খেতে পারেন।

৪। পেঁপে
পাকা পেঁপে কোষ্ঠ পরিষ্কার করে,বায়ু নাশ করে। বদহজমের রোগীরা পেঁপে খেলে উপকার পাবে।কাঁচা পেঁপের আঠা বীজ ক্রিমিনাশক, প্লীহা ও যকৃতের পক্ষে হিতকারি। প্রতিদিন সকালে কাঁচা পেঁপের আঠা ৫-৭ ফোটা করে বাতাসার সঙ্গে খেলে অর্শের রক্ত পড়া বন্ধ হয়।

এছাড়াও ডাবের পানির পুষ্টিগুণ যে কোন এনার্জি ড্রিংক এর চাইতে কম নয় বরং অনেক গুণ বেশি এবং এটি ফ্যাট এবং কোলেস্টেরল মুক্ত। এতে রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণে পটাসিয়াম যা গরম কমানোর অন্যতম একটি উপাদান। দিনে একটি ডাবের পানি স্যালাইনের বিকল্প হিসেবে কাজ করতে পারে।

উপরে