ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮
বাসি ভাত ফেলে দিচ্ছেন?

বাসি ভাত ফেলে দিচ্ছেন? জানেন তো এর উপকারিতাগুলো?

20fours Desk | আপডেট : ১২ নভেম্বর, ২০১৮ ০৯:৫৭
বাসি ভাত ফেলে দিচ্ছেন? জানেন তো এর উপকারিতাগুলো?

ভাত আমাদের প্রধান খাদ্য। সারাদিন যাই খাই না কেন ভাত আমাদের খেতেই হবে। গরম গরম ভাতের মজাই কিন্তু আলাদা। আর ভাত যদি ঠান্ডা বা বাসি হয়ে গেলেই অনেকে খেতে চায় না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় আগের রাতের বাসি ভাত পরদিন ফেলে দেওয়া হয় ডাস্টবিনে। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না এই বাসি ভাতেরও কিন্তু অনেক পুষ্টিগুণ আছে। এই বাসি ভাত বিভিন্নভাবে আমাদের স্বাস্থ্যের অনেক উপকার করতে পারে। কি শুনে অবাক হচ্ছেন? অবাক হলেও একথা কিন্তু একদম সত্য। আসুন আজ জেনে নিই বাসি খেলে আমাদের কী কী উপকার হয়ে থাকে।

বাসি ভাতের উপকারিতাঃ

১। সারাদিন আমরা যাই খাই না কেন, সকালের ব্রেকফাস্টটা কিন্তু একদম ভারি হতে হবে। কারণ সারারাত লম্বা একটা সময় না খেয়ে থাকা এবং সারাদিনের কাজ করার এনার্জি দিবে সকালের ব্রেকফাস্ট। তাই সকালের খাবার হতে হবে ভারি এবং পুষ্টিকর। আর এক্ষেত্রে আপনি বেছে নিতে পারেন বাসি ভাতকে। কারণ পুষ্টিবিদরা বলছেন, ভাতের মতো বাসি ভাতেও রয়েছে অনেক খাদ্য গুণ। যা আমাদের পেট ভরিয়ে রাখবে এবং একই সাথে সারাদিনের কাজের জন্য যোগাবে অফুরন্ত এনার্জি।

২। আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যাদের সবসময়ই গ্যাস্ট্রিক বা আলসারের সমস্যা লেগেই থাকে। একটু কিছু খেলেই শুরু হয় পেট কিংবা বুক জ্বালা-পোড়া। তাদের জন্য বাসি ভাত কিন্তু সবচেয়ে বেশি উপকারি। এতে যেমন পেটও ভরবে, তেমনি গ্যাস্ট্রিক বা আলসারের সমস্যাও হবে না। ফলে পেট কিংবা বুক জ্বালা-পোড়া থেকে মিলবে মুক্তি। আসলে বাসি ভাতে থাকা খাদ্যগুণ পেটের ঘা ও জ্বালা কমিয়ে দেয়।

৩। বাসি ভাত কিন্তু আমাদের কনস্টিপেসন কমায়। তাই কনস্টিপেশনের সমস্যার যারা ভুগছেন তাদের জন্য বাসি ভাত হতে পারে দারূন এক সমাধান। আমাদের গ্রহনকৃত খাদ্যসমূহের মধ্যে বাসি ভাত সবচেয়ে সহজে হজম হয় এবং হজম হওয়ার পরে এটি খুব দ্রুত মল আকারে বের হয়ে যায়। ফলে কনস্টিপেশনের সমস্যা একদমই থাকে না। তাই যাদের এই সমস্যার কারণে প্রতিদিনের সকালটা অনেক কষ্টকর হয়ে থাকে তারা কিন্তু সকালে বাসি ভাত খেতেই পারেন।

৪। বাসি ভাতে আমাদের মানব দেহের জন্য উপকারি বহু ব্যাকটেরিয়া বেড়ে উঠে। এছাড়াও বাসি ভাত খেলে আমাদের শরীর হালকা লাগে এবং কাজে বেশি শক্তি পাওয়া যায়। এতে আমাদের পেটের পীড়া ভাল হয় এবং শরীরে তাপের ভারসাম্য বজায় থাকে। রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকে এবং শরীরে সজিবতা বিরাজ করে বাসি ভাত খেলে।

৫। বাসি ভাত খেলে আমাদের এলার্জি জনিত সমস্যা প্রশমিত হয় এবং ত্বক ভাল থাকে। অঙ্গ প্রত্যঙ্গ সবল হয় এবং মেজাজ ভাল থাকে। এছাড়াও শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় এবং সারাদিন মন মেজা

উপরে