ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮
দাঁত পরিষ্কার

দাঁত পরিষ্কারের ক্ষেত্রে আপনিও এই ভুলগুলো করছেন না তো ?

20fours Desk | আপডেট : ১২ নভেম্বর, ২০১৮ ০৯:৪৮
দাঁত পরিষ্কারের ক্ষেত্রে আপনিও এই ভুলগুলো করছেন না তো ?

দাঁত আমাদের শরীরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ন একটি অংশ। এর মাধ্যমে আমরা খাবার ছিড়ে এবং চিবিয়ে খেয়ে থাকি। এছাড়াও দাঁত আমাদের সৌন্দর্যের একটি অংশ। এজন্য দাঁতের যত্ন নেওয়া সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। দাঁত পরিষ্কার করার জন্য আমরা দিনে দুইবার দাঁত পরিষ্কার করে থাকি। আমরা সবাই দাঁত পরিষ্কার করে থাকলেও এক্ষেত্রে আমরা সবাই কিছু কিছু ভুল করে থাকি। যেমন- বেশি সময় ধরে দাঁত ব্রাশ করা, জোরে চাপ দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করা ইত্যাদি। এসবের ফলে দাঁতের উপকারের চেয়ে বরং ক্ষতিই বেশি হয়ে থাকে। আসুন আজ জেনে নিই দাঁত পরিষ্কার করার ক্ষেত্রে এমন কিছু ভুল সম্পর্কে যা আমরা সবাই করে থাকি।

দাঁত পরিষ্কারের ক্ষেত্রে কিছু ভুল ধারনাঃ  

১। আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যারা শক্ত ব্রিসলের ব্রাশ ব্যবহার করে থাকি। যা আমাদের দাঁতের জন্য মারাত্বক ক্ষতিকর। এই শক্ত ব্রিসলের ব্রাশ আমাদের দাঁতের উপরের এনামেলের ক্ষতি করে। এটি একই সাথে আমাদের দাঁতের মাড়িরো ক্ষতি করে থাকে। তাই অবশ্যই আমাদের শক্ত ব্রিসলের ব্রাশ পরিহার করে ভালো ব্র্যান্ডের ভাল নরম ব্রিসলের ব্রাশ ব্যবহার করা উচিত।

২। বেশি করে চাপ দিয়ে দাঁত ঘষলে দাঁত ভালো পরিষ্কার হয়, এমন ধারনা আমাদের অনেকের মাঝেই আছে। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ একটি ভুল ধারনা। দাঁত মোটেও বেশি চাপ দিয়ে ঘষা ঠিক না। এতে যেমন দাঁতের উপরের অংশ এনামেলের মারাত্বক ক্ষতি হয়, তেমনি মাড়ির চামড়ারও অনেক ক্ষতি হয়ে থাকে। একই সাথে এর ফলে আমাদের মাড়ির টিস্যুরও অনেক ক্ষতি হয়ে থাকে।

৩। দীর্ঘ সময় ধরে দাঁত ব্রাশ করলে দাঁত ভালো করে পরিষ্কার হবে। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। প্রতিটা জিনিসেরই একটি নির্দিষ্ট সময় রয়েছে। ২ মিনিটের বেশি দাঁত মাজা অত্যন্ত ক্ষতিকর। কারণ দাঁত পরিষ্কার  করার টুথপেস্টে আছে ফ্লুরাইড। যা আমাদের মুখে লালা তৈরিতে বাঁধা তৈরি করে।

৪। অনেকেই আছেন যারা খাওয়ার পর পরই দাঁত পরিষ্কার করে থাকেন। এতে দাঁতের উপকারের চেয়ে কিন্তু ক্ষতিই বেশি হয়ে থাকে। খাওয়ার পর পরই বিশেষ করে অ্যাসিডিক খাবার ও ফলমূল খাওয়ার পর ব্রাশ করলে দাঁত ক্ষয় হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। তাই খাওয়ার আধা ঘন্টা পর দাঁত ব্রাশ করা উচিত।

৫। ভালোভাবে দাঁত পরিষ্কার করার জন্য প্রয়োজন একটি সঠিক টুথপেস্টের। আর এই টুথপেস্টের কেনার ক্ষেত্রে আমরা প্রভাবিত হই বিজ্ঞাপন দেখে। সাধারণত বিজ্ঞানের রং-বেরঙয়ের টুথপেস্ট দেখে আমরা এসব কিনে থাকি। যা একদমই উচিত নয়। স্বাস্থ্যসম্মত উপাদান দিয়ে তৈরি এবং ভালো ব্রান্ডের টুথপেস্ট ব্যবহার করা উচিত।

উপরে