ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮
অলিভ অয়েল

রূপচর্চায় অলিভ অয়েল

20Fours Desk | আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১০:১৪
রূপচর্চায় অলিভ অয়েল

অলিভ অয়েল আমাদের সবার পরিচিত । সেই প্রাচীনকাল থেকেই রান্না এবং  চিকিৎসার কাজে এই তেল ব্যবহৃত হয়ে আসছে। জলপাই থেকে তৈরি এই তেল আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য যেমন উপকারী তেমনি আমাদের রূপচর্চার এটি অনেক কার্যকরী। আসলে অলিভ অয়েলে এমন কিছু  উপাদান আছে যা, আমাদের ত্বকের জন্যও অনেক উপকারী। আসুন জেনে নিই রূপচর্চায় অলিভ অয়েলের কিছু অনন্য ব্যবহার সম্পর্কে।

১। মেকআপ পরিষ্কার করতেঃ

বর্তমান সময়ে মেকআপ সৌন্দর্যের অন্যতম একটি অংশ । এর মাধ্যমে আমাদের সৌন্দর্য আরও সুন্দর ভাবে ফুটে ওঠে। কিন্তু মেকআপের ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো সঠিক ভাবে মেকআপ তুলে ফেলা।মেকআপ তুলতে আমরা তো রীতিমত ত্বকের সাথে যুদ্ধ করি। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না যে, মেকআপ তুলতে অলিভ অনেক কার্যকর। এজন্য কটন বলে সামান্য অলিভ অয়েল নিয়ে আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করুন।খুব সহজেই মুখের সমস্ত মেকআপ উঠে আসবে।

২।  চুলের যত্নেঃ

সুন্দর ঝলমলে চুল কে না চায়। আর এই চুলের সৌন্দর্য বাড়াতে আমরা কত কিছুই না করে থাকি। তবে মজার বিষয় হলো চুলের যত্নে অলিভ অয়েল অনেক ভালো একটি প্রাকৃতিক উপাদান। এজন্য একটি ডিম ও ২ চামচ অলিভ অয়েল  ভালমতো মিশিয়ে চুলে লাগিয়ে ২০ থেকে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করে হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে চুলের উজ্জ্বলতা অনেক বাড়বে। একই সাথে শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনারের বদলে হাতের তালুতে কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েল নিয়ে ভালো ভাবে হাতে ঘষে চুলে লাগালে কন্ডিশনারের কাজ করে। এছাড়াও খুশকি মুক্ত চুল পেতে সমপরিমাণ অলিভ অয়েল এবং বাদামের তেল একসাথে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় ঘষে ঘষে লাগিয়ে এক ঘণ্টা অপেক্ষা করে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেওললে খুশকি দূর হবে।

৩। ঠোঁটের যত্নেঃ

ঠোঁট কোমল ও সজীব রাখতে কিংবা ঠোঁটকে আরও গোলাপি করে তুলতে অলিভ অয়েলের তুলনা নেই। এজন্য রাতে ঘুমানোর আগে পরিষ্কার তোয়ালে দিয়ে ঠোঁট পরিষ্কার করে তারপর অলিভ ওয়েল লাগান। আবার লিপবাম বা ভেসলিনের বদলে ঠোঁটে অলিভ অয়েল ব্যবহার করলে অনেক পকার মেলে। একই সাথে লিপস্টিক লাগানোর আগে সামান্য অলিভ অয়েল দিয়ে নিলে ঠোঁট নরম থাকবে।

৪। নখের যত্নেঃ

সুন্দর এবং স্বাস্থ্যকর নখ কে না চায়। আর এজন্য প্রয়োজন নখের সঠিক যত্ন। ভঙ্গুর নখ এবং নখের চামড়ার বাইরের স্তর সুস্থ, সুন্দর এবং কোমল রাখার জন্য অলিভ অয়েল দারূণ কার্যকর। এজন্য কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েল নিয়ে নখের উপরে এবং চারপাশের কিউটিকলে ভালোভাবে মালিশ করলে নখ স্বাস্থ্যকর, শক্ত ও উজ্জ্বল হয়। এর পাশাপাশি অলিভ অয়েল আমাদের নখের চারপাশ নরম এবং আর্দ্র রাখে।

৫। পায়ের যত্নেঃ

কখনো কি চিন্তা করেছেন সারাদিন আপনার পা যুগলকে কতটা কষ্ট করতে হয়। আর এজন্য দিনের শেষের  প্রয়োজন পায়ের সঠিক যত্ন। আর পায়ের যত্নে অলিভ অয়েল অতুলনীয়। এজন্য রাতে ঘুমানো আগে বা গোসলের আগে পরিমাণমতো অলিভ অয়েলের সাথে ১ চামচ লবণ মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে পায়ে ম্যাসাজ করুন। এতে আপনার পা থাকবে।

উপরে